লিভারের রোগ প্রতিরোধের সহজ উপায়

0

যকৃৎ (লিভার) শরীরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। যকৃৎ কোনো রোগে আক্রান্ত হলে পুরো শরীরের ওপর তা নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। শরীরের আয়রন, চিনি এবং চর্বির বিপাকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে যকৃৎ। অবসন্নতা, দুর্বলতা, হঠাৎ ওজন কমে যাওয়া বা বমি হওয়া ইত্যাদি যকৃতের রোগের প্রাথমিক লক্ষণ।

কখনো কখনো যকৃতের রোগ সারাতে ওষুধের প্রয়োজন পড়ে। আবার কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি রয়েছে যেগুলো যকৃতের রোগ প্রতিরোধ ও প্রতিকারে সাহায্য করে। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে জীবনধারাবিষয়ক ভারতীয় ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাই জানিয়েছে এসব ঘরোয়া পদ্ধতির কথা।

অ্যাপেল সিডার ভিনেগার

অ্যাপেল সিডার ভিনেগার যকৃৎ থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে সাহায্য করে। এটি সহজে চর্বি হজম করতে সাহায্য করে। সমপরিমাণ মধু, লেবু ও অ্যাপেল সিডার ভিনেগার পানিতে মেশান। এক মাস নিয়মিত এই মিশ্রণটি সেবন করলে যকৃতের রোগ থেকে দূরে থাকা যায়।

আমলকী

আমলকী ভিটামিন সি-এর ভালো উৎস। এটি যকৃতের কার্যক্রমকে ভালো রাখতে সাহায্য করে। দিনে পাঁচ থেকে ছয়টি আমলকী খেলে যকৃৎ ভালো থাকে।

হলুদ

হলুদের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিসেপপটিক উপাদান। এটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের মতো কাজ করে। হলুদ যকৃতের স্বাস্থ্যকে ভালো রাখে।

পেঁপে

যকৃতের যত্ন নেওয়ার জন্য পেঁপে খুবই উপকারী। এটি সহজলভ্য। দুই চা চামচ পেঁপের রসের সঙ্গে আধা চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিয়মিত মিশ্রণটি সেবন করতে পারেন। মিশ্রণটি চার মাস সেবন করলে যকৃৎ সুস্থ থাকবে।

গ্রিন টি

গ্রিন টির মধ্যে রয়েছে ক্যাটাচিন। এটি যকৃতের কার্যক্রম ভালো রাখে। তাই সুস্থ থাকতে চাইলে নিয়মিত গ্রিন টি পানের অভ্যাস গড়ে তুলুন। তবে যেকোনো খাবার নিয়মিত খাওয়ার আগে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।