ডেঙ্গু জ্বরে যা করবেন, যা করবেন না

0

ডেস্ক রিপোর্ট: আবারো ঢাকাবাসীর মধ্যে ফিরে এসেছে ডেঙ্গু জ্বর আতঙ্ক। মূলত মৌসুমী বৃষ্পিপাতের সময় পরিবর্তনের কারণে চলতি মৌসুমে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। সর্বশেষ জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাও ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন।

ডেঙ্গু ভাইরাস বহনকারী মশার কামড়ে ডেঙ্গু জ্বর হয়। মাথাব্যথা, চোখের পিছনের অংশে ব্যথা, পেশি ও জয়েন্টে ব্যথা, বমি বমি ভাব, বমি, শরীরে ফুসকুঁড়িসহ উচ্চ তাপমাত্রায় (১০৪ ফারেহাইট) জ্বর হলে তাকে ডেঙ্গু বলা যায়। উচ্চ তাপমাত্রার কারণে হাইপোগ্লোসিমিয়া হয়ে রোগীর মৃত্যু ঘটতে পারে। ডেঙ্গু জ্বর হলে শরীরে ফুসকুঁড়ি দেখা দেবে।

অনেকেই ডেঙ্গু আক্রান্ত হওয়ার সংবাদে বড়ই আতঙ্কিত হয়ে থাকেন। তবে ডেঙ্গু জ্বরে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। চিকিৎসকের পরিচর্যা ও সুষম খাবার গ্রহণ করলে এ ধরনের রোগী সহজেই ডেঙ্গু থেকে পরিত্রাণ পেতে পারেন।

ডেঙ্গু জ্বর হলে যা করবেন:
১.প্রথমেই রোগীকে চিকিৎসকের কাছে নিতে হবে। নিবিড় ও ধারাবাহিক চিকিৎসা চালাতে হবে।
২. রোগীর শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বজায় রাখতে পর্যাপ্ত খাবার ও পানি পান করাতে হবে।
৩. ভিটামিন, সবজি ও ফলসহ অন্যান্য খাবারের ধারাবাহিকভাবে খাওয়াতে হবে ও রোগীর দিকে নজর রাখতে হবে।
৪. প্রোটিন প্রদানের হারে অদল-বদল আনতে হবে।
৫. যাদের ডেঙ্গু জ্বর হয়, তাদের সারাদিনই প্রচুর তরল খাবার খেতে হবে। পানি, ফলের জুস, লেবুর জুস, ডাবের পানি পান করাতে হবে। এগুলো শরীর থেকে রাসায়নিক মূত্রের মাধ্যমে বের করে দিতে সাহায্য করে। দ্রুত আরোগ্য লাভের জন্য সতেজ সবজি, ফল ও ভিটামিন যুক্ত খাবার খেতে দিতে হবে।
৬. শরীরে থাকা ভাইরাসের সাথে যুদ্ধ করার জন্য সতেজ সবুজ সবজি ও সুষম খাবার খেতে দিতে হবে।
৭. ঘরে তৈরি পেঁপের জুস ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধে জন্য খুবই উপকারী
৮. আরোগ্য লাভের পরে রোগীর শরীরে চর্বি, প্রোটিন, ভিটামিন ও পানির ঘাটতি পূরণ দরকার হয়। ফলে মুরগীর মাংস, মাছ, ডিম ও অন্যান্য দুগ্ধজাত খাবার খাওয়াতে হবে।
যা করবেন না:
১. রক্ত পাল্টানোর দরকার নেই
২. স্টোরয়েড দিবেন না, এর কোন উপকারীতা নেই।
৩. এন্টিবায়েটিক ব্যবহার করবেন না
৪. মাংস, মসলাযুক্ত খাবার খেতে দিবেন না।

ডেঙ্গু জ্বরে আতঙ্কিত না হয়ে রোগ প্রতিরোধ করার চেষ্টা করাই উত্তম। ঘুমানোর সময় অবশ্যই মশারি ব্যবহার করবেন। এছাড়া বাসার চারিপাশ পরিষ্কার রাখুন। কোন পাত্রে যাতে পানি না জমে সেদিকে খেয়াল রাখুন। আপনার সামান্য সচেতনতাই পারে আপনাকে ডেঙ্গু জ্বর থেকে মুক্ত রাখতে।