হাতের সোন্দর্যে নখে নকশা

0

(শাহীতাজ আক্তার)- হাল ফ্যাশনে নখের সাজ খুব প্রচলিত। আধুনিক ফ্যাশন সচেতন মেয়েদের কাছে শরীরের অন্য সব অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সাজানোর পাশাপাশি এখন নখের সাজও খুব জরুরি হয়ে উঠেছে। সুন্দর ঝকঝকে নখ সবার পছন্দ। অতীতে শুধু নেইলপলিশ লাগানোর প্রচলন থাকলেও এখন নেইলপলিশের পাশাপাশি নেইল আর্টটাও ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। নখ রাঙিয়ে বা সাজিয়ে আকর্ষণীয় করতে চায় সবাই। এটি নিয়ে সমস্যা নেহাত কম নয়। নখের রঙ বদলে হলদেটে হয়ে যাওয়া, কখনওবা নখ ভঙ্গুর হয়ে যায়। এজন্য নেইল আর্ট করুন বা অ্যাক্রোলিক নেইল ব্যবহার করুন তবে সর্বপ্রথমে নখের সম্পর্কে হোন যতœবান।

লালমাটিয়া কলেজের øাতক চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী লিজা। বন্ধুরা তাকে আদর করে ডাকেন রাজকন্যা। অন্যকে সাজাতে আর নিজে সাজতে পছন্দ করেন খুব। তিনি বলেন, ছোটবেলায় সাজগোজ করার জন্য আম্মুর কাছে বকা খেয়েছি অনেক। কিন্তু অভ্যাসটা ছাড়তে পারিনি। একটু বড় হতে দেখি বন্ধুরা অনেকেই সুন্দর সাজগোজ করার জন্য আলাদা কদর করে আমাকে আর ডাকে রাজকন্যা বলে। আগে তো হাত, মুখ, চোখ, নাক সাজাতাম। এখন এগুলোর পাশাপাশি নখের সাজও খুব ভালো লাগে। আমি প্রায়ই নেইল আর্ট করে থাকি বিভিন্ন রঙের নেইলপলিশ দিয়ে। আর মাঝে মাঝে অ্যাক্রোলিক নেইলও ব্যবহার করি, বেশ লাগে। আমার বন্ধুরা তো বটেই এমনকি জুনিয়ররা পর্যন্ত আমার কাছে আসে সাজগোজের পরামর্শের জন্য। তখন খুব ভালো লাগে।

ছাত্রী হোক বা কর্মজীবী মহিলাÑ এখন যে কোন বয়সের আধুনিক ফ্যাশন সচেতন মেয়েই নখের সাজের প্রতি আগ্রহী। একটু আধুনিক হলে আপনিও করিয়ে নিতে পারেন নখের সাজ। এ বিষয়ে পরামর্শ দিয়েছেন রেড বিউটি স্যালনের বিউটি এক্সপার্ট এবং সিইও আফরোজা কামাল। তিনি বলেন, ‘এই সময়ে নখের সাজ খুব জনপ্রিয়। বিশেষ করে টিনএজ মেয়েরা খুব আগ্রহের সঙ্গে গ্রহণ করেছে নখের সাজকে। টিনএজ বয়সের মেয়েরা সাধারণত প্রতিনিয়ত যে কোন নতুন ধরনের ফ্যাশনের সঙ্গে থাকতে পছন্দ করে। নতুন যে কোন কিছু, নতুন চ্যালেঞ্জিং বিষয়গুলো তারা খুব আগ্রহের সঙ্গে গ্রহণ করে। এ কারণে তারা নখের সাজও খুব গ্রহণ করেছে। আগে যেমন বিভিন্ন রঙের নেইলপলিশ ব্যবহার করা হতো, এখন বিভিন্ন রঙের নেইলপলিশের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বিভিন্ন ধরনের এলিমেন্ট। যার মাধ্যমে আনা হচ্ছে বিভিন্ন রঙের নিত্যনতুন টেক্স, ডিজাইন ইত্যাদি। চাইলে যে কেউ নেইল আর্ট ছাড়াও অ্যাক্রোলিক নেইল ব্যবহার করতে পারেন। যাদের নখ ছোট তারা সাধারণত নেইল আর্ট না করিয়ে অ্যাক্রোলিক নেইল ব্যবহার করতে পারেন।

অ্যাক্রোলিক নখ হল নখের বিকল্প কৃত্রিম নখ। বাজারে বর্তমানে এর যথেষ্ট কদর রয়েছে। নখের সাজ সাধারণত মুখের সাজ ও পোশাকের ওপর নির্ভর করে। আপনার সাজ যদি উজ্জ্বল হয় তাহলে হালকা রঙের নেইলপলিশ ব্যবহার করতে পারেন। স্বচ্ছ রঙ, হালকা রূপালি, গোলাপি, সাদা, চাপা সাদা, ধূসর, বাদামি ও বিজ রঙ এখন বেশ ট্রেন্ডি। পাশাপাশি কালো, লাল, সবুজ, গাঢ় নীল রঙও চলছে। যদি আপনি দিনের বেলার পার্টিতে যাওয়ার জন্য নখ সাজাতে চান তাহলে বেছে নিতে পারেন যে কোন হালকা রঙ আর যদি রাতের পার্টি হয় তাহলে বেছে নিতে পারেন যে কোন ডার্ক কালারের নেইলপলিশ। আর যদি ব্রাইডাল নেইল আর্ট করান তাহলে সেটা যেন অবশ্যই গর্জিয়াস হয়ে থাকে। সাধারণত দুই ধরনের নেইল আর্ট করানো হয়ে থাকে বিউটি পার্লারগুলোতে। চাইলে আপনি এক দিনের জন্যও সাজাতে পারেন আপনার নখ অথবা পার্মানেন্টলি করালে তিন মাস বা চার মাসের জন্যও করাতে পারেন। সে ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যে আপনার নখের সাইজের দিকে। আপনার নখ যদি সাইজে দ্রুত বড় না হয় তাহলে আপনি তিন/চার মাসের জন্য পার্মানেন্টলি করিয়ে নিতে পারেন নেইল আর্ট। তবে আপনি তিন/চার মাসের জন্য করান আর এক দিনের জন্য করান আপনাকে অবশ্যই আপনার নখের প্রতি যথেষ্ট যতœশীল হতে হবে। নেইল আর্ট করানোর পর মেনিকিউর এবং পেডিকিউর করানোর সময় খুবই সতর্কতার সঙ্গে করাতে হবে। কাজ করার সময় যেন আপনার নখের উপর খুব বেশি চাপ না পড়ে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।’
খরচাপাতি : সাধারণ ব্রাইডাল নেইল আর্ট করাতে খরচ পড়বে ১৫০০ টাকা আর নর্মাল পড়বে ৭৫০ টাকা। এ ছাড়া নর্মাল অ্যাক্রোলিক নেইল লাগাতে চাইলে খরচ পড়বে ৭৫০ টাকা। এ তো গেল এক দিনের জন্য। আর যদি আপনি তিন/চার মাসের জন্য করাতে চান তাহলে আর্টসহ পড়বে ৬০০০ টাকা আর আর্ট ছাড়া করালে খরচ পড়বে ৪০০০ টাকা।

কোথায় করাবেন নেইল আর্ট : রেড, পারসোনার মতো যে কোন বড় বড় বিউটি পার্লারেই আপনি পাবেন এ সাজের সুযোগ।
টিপস্ : নখ সাজাতে গেলে খেয়াল করুন আপনার পোশাকের দিকে। আপনার পোশাক যে রঙের সেই রঙের নেইলপলিশ লাগিয়ে তার ওপর একই রঙের নেইলপলিশ হালকাভাবে বেজ হিসেবে লাগিয়ে ব্যবহার করতে পারেন মিক্সড পাথর। যেমন আপনার সাজ যদি নীল হয়ে থাকে তাহলে নখে নীল নেইলপলিশ লাগিয়ে তারপর হালকা নীল রঙের নেইলপলিশের বেজ নিন এবং ব্যবহার করুন সাদা ও নীল পাথরের কম্বিনেশন। নখে লাগাতে পারেন বেগুনি রঙের নকশাদার স্ট্যাম্প। গোলাপি যে কোন পোশাকের সঙ্গে মানিয়ে যাবে।
রাতের পার্টির জন্য নখে ফ্রেঞ্চ মেনিকিউর করিয়ে লাল নেইলপলিশ ও পাথরের ব্যবহার করতে পারেন। রাতের যে কোন অনুষ্ঠানের জন্য সুন্দর মানাবে এই সাজ। নখ সাজাতে নকশাদার স্ট্যাম্প কিনে নেয়া যেতে পারে অথবা সৃজনশীলতা প্রকাশের জন্য নিজের ইচ্ছেমতো রাঙিয়ে নেয়া যেতে পারে। নখ ছোট হলে আলাদা নকশা করা নখও কিনে নেয়া যেতে পারে।

নখ শুধু সাজালে চলবে না তার জন্য নিয়মিত যতœ নিতে হবে। নখের কোন সমস্যা থাকলে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে। সুন্দর নখের জন্য সুন্দর হাত খুব জরুরি। আর তাই নখ সাজাতে গেলে প্রথমেই খেয়াল রাখতে হবে হাতের সাজ যেন ঠিক থাকে।
নিজেকে সুন্দরভাবে প্রকাশ করার জন্য সুন্দর থাকার কোন বিকল্প নেই। আর তাই সুন্দরভাবে সাজগোজ করাও জরুরি। তো হয়ে গেল নখের সাজের সাতকাহন। তাহলে আর দেরি কেন এখনি সাহস করে নিজেকে একটু রাঙিয়ে তুলুন না নখের বর্ণিল সাজে।