ব্রণ সারানোর সহজ কৌশল

0

(লাবণ্য লিপি)-  ব্রণ সাধারণত বয়োসন্ধিকালের সমস্যা হলেও এটা যে কোন বয়সেই হতে পারে। বিশেষ করে গরমের সময়টাতে সমস্যাটা আরও বেড়ে যায়। তাই ব্রণ হলে সেটাকে অবহেলা না করে দ্রুত সারাতে চেষ্টা করা ভালো। কারণ ব্রণ হলে যে শুধু ত্বকের সৌন্দর্য নষ্ট করে তা নয়, দীর্ঘদিন ত্বকে ব্রণ থাকলে দাগের সৃষ্টি হয় এবং কখনও কখনও সেটা ত্বকের অন্য সমস্যাও সৃষ্টি করে। অথচ একটু সময় করে ত্বকের পরিচর্যা করলে এবং কিছু নিয়ম মেনে চললে ব্রণ থেকে মুক্তি পেতে পারেন। রইল ব্রণ সারানোর সহজ কিছু টিপস

যা করবেন
১) বেশির ভাগ সময়ই ব্রণ হয় ত্বক অপরিচ্ছন্ন রাখার কারণে। কাজেই প্রতিদিন ভালোভাবে ত্বক পরিষ্কার করুন।

২) কর্মজীবী কিংবা ছাত্রী হলে ব্যাগে গোলাপ জল ও তুলার বল রাখুন। সময় ও সুযোগ পেলে দিনে অন্তত ৪-৫ বার গোলাপ জলে তুলা ভিজিয়ে মুখটা মুছে নিন।

৩) যাদের ত্বক তৈলাক্ত তারা ঘুমাতে যাওয়ার আগে চন্দন বাটার সঙ্গে মুলতানি মাটি মিশিয়ে পাতলা পেস্ট তৈরি করে মুখে লাগান। সম্ভব হলে রাতে ওভাবেই ঘুমাতে যান। সকালে মুখ ধুয়ে নেবেন।

৪) মেকআপ ভালো করে না তুলে কখনও ঘুমাতে যাবেন না। প্রতিদিন অন্তত ৩-৪ বার নিম সাবান দিয়ে মুখ ধোবেন।

৫) ব্রণ থাকলে প্রচুর পানি পান করুন। পেট পরিষ্কার রাখতে প্রত্যেক সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে ত্রিফলা ভেজানো পানি পান করুন।

৬) মাথায় খুশকি থাকলেও ব্রণ হয়। তাই খুশকি থাকলে আগে সেটা দূর করুন।
যা করবেন না

৭) ত্বকে ব্রণ হলে তা নখ দিয়ে খুঁটবেন না। এতে ব্রণ আরও বাড়বে এবং দাগ হবে।

৮) বেশি করে তেল-মশলা দেয়া খাবার খাবেন না।

৯) ব্রণ থাকলে পার্লারে গিয়ে যে কোন ফেসিয়াল করানো উচিত নয়। ত্বক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে ব্রণের উপযোগী ফেসিয়াল করান।

১০) ব্রণ থাকলে মুখে ক্রিম বা লোশন লাগাবেন না।

১১) চুলে তেল লাগানোর সময় খেয়াল রাখবেন যেন তা মুখে না লাগে। রাতে মাথায় তেল লাগাবেন না। লাগালে সেটা মুখে চলে আসে।

উপকারী প্যাক
২ চা চামচ তুলসি পাতা বাটা, ২ চা চামচ নিম পাতা বাটা, ২ চা চামচ চালের গুঁড়া, ১ চা চামচ মুলতানি মাটি ও পরিমাণমতো গোলাপ জল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার ওই পেস্ট মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত দুই দিন এ প্যাকটি ব্যবহার করতে চেষ্টা করুন। আর ত্বকের প্রতি যতœশীল হলে এমনিতেই ব্রণ কমে যাবে।