ঘরোয়া দাওয়াই

0

ই-হেলথ২৪ ডেস্ক
আপনি কি দাঁতের ব্যথায় অস্থির? হজমের গোলমাল? এরকম সমস্যা সমাধানে হাতের কাছে মসলা রাখুন।

রসুন : মিনারালসের মিনি স্টোর হাউস। ছোট্ট এক কোয়া রসুন অ্যান্টিবায়োটিক, অ্যান্টিভাইরাল, অ্যান্টিফাঙ্গাল, অ্যান্টিসেপটিক হিসাবে কাজ করে। রসুনের সালফার শরীরের নানা হরমোন নিঃসরণে সাহায্য করে। শুধু কাঁচা রসুনই নয়, রান্নায় ব্যবহৃত রসুনও শরীরের জন্য উপকারী। ম্যাঙ্গানিজ, কপার, জিঙ্ক, অ্যালুমিনিয়াম, ক্লোরিন, সেলেমিনিয়াম_ সবই আছে রসুনে।

খাদ্যগুণ : রসুনে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সেলেনিয়াম থাকে। কোষ ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করে। ট্রাইগি্লসারাইড আর্টারি পরিষ্কার রেখে হৃদরোগের সম্ভাবনা কমায়। অ্যান্টিকোয়াগুলেন্ট বলে রক্তকে জমাট বাঁধতে দেয় না। লিম্ফেটিক সিস্টেমকে উদ্দীপিত করে রক্ত পরিষ্কার রাখে।

উপকারিতা : ক্যান্সার, হৃদরোগ প্রতিরোধে কিছুটা সাহায্য করে। উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে। শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। লিভারকে রক্ষা করে। ডায়াবেটিস কমায়। অ্যাকনের জন্য রসুন খুব উপকারী। অ্যান্টিবায়োটিক, অ্যান্টিসেপটিক হিসেবে রসুন ক্ষতিগ্রস্ত ত্বক সারিয়ে তোলে। ত্বকের পিএইচ লেভেলও বজায় রাখে। রসুনের তেল চুল পড়া বন্ধ করে।

অপকারিতা : কাঁচা রসুন অনেক সময়ই পেটের জন্য উপকারী নয়।

আদা

আদার ঝাঁজেই উপকারিতা। আদায় আছে প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, মিনারেল, ভিটামিন, পটাশিয়াম, ফসফরাস।

খাদ্যগুণ : আদায় ভিটামিন-সি থাকায় সর্দি-কাশি প্রতিরোধ করে। রাইবোফ্লেভিন পেট পরিষ্কার রাখে।

উপকারিতা : আদা ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। সর্দি-কাশি কমায়। হৃদরোগ নিয়ন্ত্রণ করে। ডায়াবেটিস কমায়। বাতের ব্যথা কমায়। হজমে সাহায্য করে।

অপকারিতা : জন্ডিস এবং আলসারে আদা খাওয়া উচিত নয়।