আইনি পরামর্শ
মেয়েদের অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হওয়া নিজের জন্যই অত্যন্ত জরুরি

0

প্রশ্ন : আমি একটি ছেলেকে ভালোবেসে নোটারীর মাধ্যমে বিয়ে করি। আমার স্বামী আমার বাবার বাসায় দাম্পত্য জীবনযাপন করে। কিন্তু তার বাসায় নিয়ে যায় না। একদিন জোর করে তার বাসায় গেলে সে, তার মা-বাবাসহ সবাই আমাকে মারধর করে বের করে দেয়। স্বামী বলে, নোটারী করে বিয়ে কোনো বিয়েই নয়। আমার শ্বশুর-শাশুড়ি বলেন, যদি ঘর করতে চাস- তাহলে আমার ছেলেকে ব্যবসা করার জন্য ৫ লাখ টাকা এনে দিবি। আমি এত টাকা কোথায় পাব? আমার মা গার্মেন্ট শ্রমিক। বাবা নেই। আমি এখন কী করব?  টুনি, মুগদাপাড়া, ঢাকা।

উত্তর : আপনার বিয়ে কাজিকে দিয়ে নিবন্ধন করানো উচিত ছিল। দ্রুত তা করে ফেলুন। যদিও আমার ধারণা, আপনার স্বামী সেটি আর এখন করতে চাইবেন না। আপনাকে যখন তারা সবাই মারধর করে বাসা থেকে বের করে দিল, তখন পুলিশের কাছে যাওয়া উচিত ছিল? তারা রীতিমতো আপনার কাছে যৌতুক চায়। যৌতুক দেওয়া ও নেওয়া দুটিই সমান অপরাধ। এর উপরে তারা আপনাকে মারধর করেছেন। আপনি যেহেতু দরিদ্র পরিবারের মেয়ে, সেহেতু কোনো আইনি সহায়তা প্রদানকারী বেসরকারি সংস্থায় আপনার অভিযোগ জানান। আপনার পাশে দাঁড়াবে তারা। এছাড়া নিজেকেও গড়ে তুলুন। কারণ আপনার বয়স বেশি নয়। সব সময় মনে রাখবেন, মেয়েদের অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হওয়া নিজের জন্যই অত্যন্ত জরুরি। যে কোনো যুদ্ধে বিজয়ী হতে গেলে আগে নিজেকে প্রস্তুত করতে হয়। আশা করি, আপনার
বিজয় হবেই। পথে অনেক বাধা আসবেই। তা আপনাকে জয় করতেই হবে।   
পরামর্শ দিয়েছেন:
দিলরুবা সরমিন
সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও মানবাধিকারকর্মী
যোগাযোগ : ০১৬২৪০১২৭৯০