আইনি পরামর্শ
আমি এভাবে আর কতদিন কাটাব?

0

প্রশ্ন : আমার বিয়ে হয়েছে পারিবারিকভাবেই। বিয়ের পর একটি মেয়ে হয়েছে। আমার স্বামী আইটি এক্সপার্ট হিসেবে অফিসে সবার খুবই প্রিয়। সবার কাছে সে আদর্শ। কেবল আমি ও আমার মেয়ে জানি, সে কত ভয়ঙ্কর! বিয়ের পর থেকেই আমাকে কারণে-অকারণে খুব মারধর করত আমার স্বামী। আমি তার মার সহ্য করতে না পেরে বাবার বাড়ি চলে আসি। গত ৫ বছর আমি ও আমার মেয়ে আমার বাবার কাছেই আছি। আমি সংসারে ফিরে যেতে চাইলেও সে ফিরে যেতে দেয় না। আমার স্বামী আমাদের মেয়ের পড়াশোনা বাবদ নামমাত্র খরচ দেয়। আমি কিছু বললেই সে বলে, ‘তোর বাপের তো অনেক টাকা। আমাদের জন্য গুলশানে বাড়ি করে দিতে বল। তাহলে আমি সেখানে তোদের নিয়ে থাকব। আমি ওই কথায় প্রতিবাদ করি বলে আমাকে যা ইচ্ছা তা-ই বলে গালাগাল করে এবং সুযোগ পেলেই মারে। আমি এভাবে আর কতদিন কাটাব?  সুপর্ণা, ধানম-ি, ঢাকা।

উত্তর : আপনার কাগজপত্র পর্যালোচনা করে দেখলাম, আপনি উচ্চশিক্ষিত নারী। অথচ আপনিই যদি এমন প্রশ্ন করেন, তাহলে সাধারণ নারীরা কী করবেন? এছাড়া আপনার কাগজপত্রে দেখলাম, বেশ কয়েকবার আপনি মারাত্মক আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। কেন? যদি এর কারণ আপনার স্বামী হয়, তাহলে কেন আপনি আইনের দ্বারস্থ হননি? যাক, সময় অনেকটা পার করে ফেলেছেন। এখন আর এভাবে সময় নষ্ট করার কোনো মানে নেই। আপনি নিজে তার সঙ্গে কথা বলুন। খুঁজে বের করুন তিনি কেন আপনার মতো স্ত্রীকে চান না। তিনি আপস-মীমাংসা করতে চান তো ভালো কথা। না হলে আইনের আশ্রয় নেওয়ার অধিকার আপনার আছে। আপনি কোনো আইনজীবীর সঙ্গে যোগাযোগ করুন বা কোনো আইনি সহায়তা প্রদানকারী বেসরকারি সংস্থায় যান। সরকারি আইনি সহায়তা আপনি পাবেন না। কারণ আপনি ধনীর মেয়ে ও ধনীর স্ত্রী। তাই নিজের ভবিষ্যতের জন্য তো বটেই, আপনাদের মেয়ের কথাও ভাবুন। আপনার স্বামীকেও ভাবার সুযোগ দিন। এসব কিছুই ভাবার দায়িত্ব আপনাদের দু’জনেরই।
পরামর্শ দিয়েছেন:
দিলরুবা সরমিন
সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও মানবাধিকারকর্মী
যোগাযোগ : ০১৬২৪০১২৭৯০