বৈশ্বিক উষ্ণতা রোধে বাংলাদেশের পাশে থাকবে সুইডেন

0

বিশেষ প্রতিনিধি
সফররত সুইডেনের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহায়তা বিষয়ক মন্ত্রী ইসাবেলা লোভিন সোমবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহিরয়ার আলম এমপির সাথে সাক্ষাত্ করেন। সাক্ষাত্কালে ইসাবেলা লোভিন বাংলাদেশের জন্য ২০১৪-২০২১ মেয়াদের জন্য সুইডিশ উন্নয়ন সহযোগিতা কৌশল সর্ম্পকে প্রতিমন্ত্রীকে অবহিত করেন। এ কৌশলের মূল লক্ষ্য হচ্ছে বাংলাদেশে সুশাসন, প্রবৃদ্ধি, স্বাস্থ্য এবং পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে সহায়তা করা।

এ সময় বৈশ্বিক উষ্ণতা মোকাবেলায় সুইডেন বাংলাদেশের পাশে থাকবে বলে   দৃঢ় আশ্বাস ব্যক্ত করেন ইসাবেলা লোভিন। বৈঠককালে সুইডিশ উন্নয়মন্ত্রী বলেন উন্নততর জ্বালানি পদ্ধতির প্রবর্তন, রাস্তাঘাট ও অবকাঠামো নির্মাণ ইত্যাদি ক্ষেত্রে সুইডেনে বেশ দক্ষ কোম্পানি রয়েছে যারা বাংলাদেশে কাজ করতে পারে। এ সফরে তিনি ছয় সদস্যবিশিষ্ট প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

সাক্ষাত্কালে শাহিরয়ার আলম সুইডেনের চলমান উন্নয়ন কর্মসূচিতে ১২টি অগ্রাধিকারভুক্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অন্তর্ভুক্তিতে ধন্যবাদ জানান। তিনি সফররত সুইডিশ মন্ত্রীকে জানান যে, বর্তমানে ৫০টির মতো সুইডিশ বা সুইডেনের সাথে সম্পর্কিত কোম্পানি নিজেরা অথবা তাদের এজেন্টদের মাধ্যমে বাংলাদেশে ব্যবসা করছে।

তিনি বলেন, সুইডেন বাংলাদেশ থেকে পাটজাত পণ্য, তথ্যপ্রযুক্তি সর্ম্পকিত পণ্য, ওষুধ, চীনামাটি ও পোড়ামাটির দ্রব্যাদি, কৃষিজাত পণ্য, ছোট ও মাঝারি জাহাজ, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, হিমায়িত খাদ্য, হস্তশিল্প ইত্যাদি আমদানি করতে পারে। তিনি আরও বলেন সুইডিশ বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে বিদ্যুত্ উত্পাদন, গ্যাস ও তেল উত্তোলন, অবকাঠামো. জাহাজ নির্মাণ, বস্ত্র, পর্যটন, তথ্য প্রযুক্তি, স্বাস্থ্য সেবা, কৃষিজাত পণ্য প্রক্রিয়াকরণ ইত্যাদি খাতে বিনিয়োগ করতে পারে।

তাছাড়া বাংলাদেশের শিল্প শ্রমিকদের দক্ষতা উন্নয়নেও সুইডেনের বিনিয়োগকারীদের সুযোগ রয়েছে। শাহরিয়ার আলম বলেন, বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণের জন্য সরকার দুর্নীতি দমন কমিশন শক্তিশালীকরণ, ই-টেন্ডারি চালুসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।