মেদ ঝরাতে ও ফিট থাকতে ওয়াটার ব্যায়াম

0

মেদ ঝরাতে ও ফিট থাকতে ওয়াটার ব্যায়াম
মেদ ঝরাতে ও ফিট থাকতে ওয়াটার ব্যায়াম
॥ ই-হেলথ২৪ ডেস্ক ॥  সাঁতার ব্যায়ামের একটি চমৎকার কৌশল। প্রায় সব অঙ্গের ব্যায়াম হয়ে যায় সাঁতার কাটার ফলে। আপনার শরীরের অলসতা দুর করে শরীরকে সুগঠিত করতে সাহায্য করবে সাঁতার।

কিন্তু যারা সাঁতার জানেন না তাদের এমন মজার ব্যায়াম কৌশল উপভোগ করা সম্ভব নয়। তবে তাদের জন্য আছে নানা ধরনের ওয়াটার ব্যায়াম, যা আপনি সাঁতারু না হয়েও সহজেই করতে পারবেন। শরীরের মেদ ঝরিয়ে ফিট থাকতে পারবেন খুব সহজেই।

একই সাথে শরীর ও মনে ফ্রেসভাব বিরাজ করবে। পানিতে থাকাকালীন সময়ে যেহেতু শরীর হালকা থাকে তাই বিভিন্ন মাংসপেশীর ও হাড়ের জয়েন্টের উপর চাপ কম পড়ে। যদি আপনার কোন জয়েন্টে ব্যাথা থাকে তাহলেও পানিতে তার প্রভাব অনেকটাই কমে যাবে। সাঁতারবিহীন ওয়াটার ব্যায়ামের কয়েকটি ধাপ বা রুটিন-

১) সুইমিং পুলে নেমে প্রথমেই গভির পানিতে বা দুরে যাবেন না। দেয়ালের কাছাকাছি থেকে কিছুক্ষন হাঁটার চেষ্টা করুন। ধীরে ধীরে হাঁটার ফলে আপনার শরীরে শক্তি সঞ্চার হবে এবং অবশ্যই আপনার পায়ের মাসল শক্ত হবে। হাঁটার সময় খেয়াল রাখবেন পানির লেভেলটা যেন আপনার কোমর থেকে বুক পর্যন্ত হয়। এর কম বা বেশি হয়ে গেলে আসল উপকারটা নাও পেতে পারেন।

২) কিছুক্ষন হাঁটার পর পুলের দেয়াল ধরে দাড়ান। এতে আপনার শরীরের ব্যালেন্স থাকবে পানিতে এবং ব্যায়াম করতেও সুবিধা হবে। স্বাভাবিক ভাবে নিশ্বাস নিতে থাকুন এবং আস্তে আস্তে ডান পা উপরের দিকে তোলার চেষ্টা করুন। একবার উপরে উঠিয়ে আবার নামিয়ে নিন। এভাবে ১৫ থেকে ২০ বার করতে থাকুন। নিয়ন্ত্রিত এবং ধীরে ধীরে করতে থাকুন। এরপর ডান পা নামিয়ে রেখে বাম পা একই ভাবে ১৫ থেকে ২০ বার উপরে উঠিয়ে আবার নামিয়ে নিন।

৩) এবার পুলের দেয়ালের দিকে পিঠ দিয়ে ভালো করে ধরে রেখে পা ভাঁজ করে হাটু বুকের কাছে নিয়ে আসুন। দেয়াল বরাবর পিঠ সমান্তরাল রেখে পা দুটো সামনের দিকে লম্বা করে টেনে দিন। এতে আপনার ব্যালেন্স রাখতে কষ্ট হবে। তবুও ১০ সেকেন্ডের মতো থাকার চেষ্টা করুন। এই ব্যায়াম আপনার পিঠের ব্যাথাসহ দুই পায়ের প্রতিটি রগে টান লেগে শক্তি ও শেপ বাড়িয়ে তুলবে। এভাবে ১০ থেকে ১২ বার করার চেষ্টা করুন।

৪) এরপর পুলের দেয়ালের দিকে মুখ করে দাড়ান এবং একই ভাবে বুকের কাছে হাটু ভাঁজ করে নিয়ে আসুন। নিশ্বাস নিন এবং নিশ্বাস ছাড়তে ছাড়তে পা দুটো পিছনের দিকে মেলে ধরুন। ১০ সেকেন্ড থাকার চেষ্টা করুন। এরপর আবার আগের অবস্থায় অর্থাৎ ভাঁজ করা অবস্থায় ফিরে আসুন। আবার নিশ্বাস ছাড়তে ছাড়তে পা দুটো দুই পাশে ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করুন এবং ১০ সেকেন্ড থাকুন। আবার আগের অবস্থায় ফিরে আসুন। পুরো পক্রিয়াটি ১০ থেকে ১২ বার করুন। এতে আপনার দুই পায়ের মাসলসহ কোমরের মাংসপেশি শক্ত হবে। তবে মনে রাখবেন এ ব্যায়াম গুলো করার সময় যেন পিঠে কোন রকম প্রেসার না পড়ে। নিজের সুবিধা মতো অবস্থান করে নিলে ভালো হবে।

৫) ব্যায়ামের প্রক্রিয়া গুলো শেষ করে একটু বিশ্রাম নিয়ে পুলের দেয়াল ঘেষে আবার হাটতে শুরু করুন। ব্যায়াম শুরু করার আগে যে গতিতে হাটছিলেন তার চেয়ে দুই বা তিন গুন বেশি গতিতে হাটতে থাকুন। ৫ থেকে ৭ মিনিটের মতো হাটা শেষ করে একটু বিশ্রাম নিন।

উপরের পাঁচটি প্রক্রিয়াকেই একত্রে একটি ওয়াটার ব্যায়াম সেট বলা হয়ে থাকে। পুরো সেটটি মনে রেখে ৩ থেকে ৪ বার করতে পারেন। এতে আপনার প্রতিটি মাংশপেশীর শক্তি বেড়ে যাবে। সপ্তাহে ৩ থেকে ৪ দিন এই ব্যায়াম গুলো করতে পারেন। অল্প সময়ের মধ্যেই আপনার স্ট্যামিনা এবং ফিটনেস পার্থক্য অনুভব করতে পারবেন। মেদ ও ক্লান্তিভাব দুর করে নিজেকে ফিট আর ফ্রেস ভাবে উপস্থাপন করতে পারবেন।